মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

উপজেলার ঐতিহ্য

 

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা সংলগ্ন ৭১ এর বধ্যভূমি (জয়বাংলা পুকর) হচ্ছে এলাকাবাসীর স্মৃতি বিধুর স্থান। শত শত মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিকামী বাঙ্গালীর আত্মহুতির নীরব সাক্ষী এ বধ্যভুমি। এখানে বিভিন্ন স্থান থেকে মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের সমর্থকদের ধরে এনে নির্মমভাবে গুলি করে হত্যা করা হতো। পাকবাহিনী কর্তৃক  জয়বাংলা পুকুর নাম করণ করে সেখানে মৃত দেহ টেনে হেচড়ে ফেলা হতো আর জয় উল্লাস করা হতো। ১৯৭২ সালে বাঙালী জাতির প্রথম বিজয় দিবস উপলক্ষে একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মিত হয় যা পরবর্তীতে দুস্কৃতিকারীরা ধবংস করে ফেলে। অতপর আলহাজ্ব সাইদুর রহমান (চানমিয়া) দীর্ঘ দিন চেষ্টার পরে তৎকালীন মাননীয় জেলা প্রশাসক জনাব সা জ ম আকরামুজ্জামান এবং সদর উপজলো নির্বাহী অফিসার জনাব মোঃ সাইফুল ইসলাম ১৯৯০ সালের ১৬ ডিসেম্বর স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মান করেন। পরবর্তীতে ১৯৯৫ সালে জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের উদ্যেগে সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দ ইউ,পি, চেয়ারম্যান, বিভিন্ন সংস্থা এবং এনজিওদের অনুদানে পূর্বের .০৫ শতাংশ জমির স্থলে .১৫ শতাংশ জায়গা জুড়ে বর্তমান স্মৃতিসৌধ নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতি বছর বিজয় দিবস ও স্বাধীনতা দিবসে পুস্পস্তবক অর্পণ এবং মিলাদ মাহফিলসহ শহীদ পরিবারের সদস্যদেরকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।